Home / জাতীয় / ঘটনার চার বছরেও আটজনের নাগাল পায়নি পুলিশ

ঘটনার চার বছরেও আটজনের নাগাল পায়নি পুলিশ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে (ঢাবি) টিএসসির কাছে পহেলা বৈশাখে বর্ষবরণ অনুষ্ঠানে নারী লাঞ্ছনায় জড়িতদের চার বছরেও খুঁজে পায়নি পুলিশ। ২০১৫ সালের মে মাসে সিটিটিভি ক্যামেরা দেখে ঘটনায় জড়িত আটজনকে চিহ্নিত করে তাদের ধরিয়ে দেয়ার জন্য লাখ টাকা করে পুরস্কার ঘোষণা করে পুলিশ। আজ ১৪ এপ্রিল নারী লাঞ্ছনার এ ঘটনার চার বছর পূর্ণ হচ্ছে।

পুলিশ জানিয়েছে, জড়িত আটজনকে না পেলে ভিডিও ফুটেজ দেখে নারী লাঞ্ছনায় জড়িত মো. কামালকে (৩৫) গ্রেপ্তার করা হয়। বিচার শুরু হয়েছে তার বিরুদ্ধে। তিনি জামিনে রয়েছেন।

এদিকে কামালের পরিবারের দাবি, ভিডিও ফুটেজে কামালকে ঘোরাঘুরি করতে দেখা গেলেও সে নারী লাঞ্ছনা করেছেন এমন কোনও প্রমাণ নেই।

মামলার তদন্তসংশ্লিষ্ট পিবিআই (পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন) সূত্র বলছে, ২০১৫ সালের পহেলা বৈশাখ ঢাবির টিএসসি সংলগ্ন সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের ফটকে নারী লাঞ্ছনার ঘটনা গণমাধ্যমে প্রকাশ হয়। আর এ বিষয়টি সিসিটিভি ক্যামেরায় ধরা পড়ে। পরে শাহবাগ থানায় পুলিশের পক্ষ থেকে মামলা করা হয়। পুলিশের পক্ষ থেকে এ ঘটনায় জড়িত আটজনের ছবি প্রকাশ করে তাদের ধরিয়ে দেয়ার জন্য এক লাখ টাকা করে পুরস্কার ঘোষণা করে।

প্রথমে মামলার তদন্দের দায়িত্ব পায় ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) গোয়েন্দা বিভাগ (ডিবি)। পুলিশ কাউকে অভিযুক্ত না করে আদালতে ২০১৫ সালের ২২ ডিসেম্বর চূড়ান্ত প্রতিবেদন দাখিল করে। সে সময় অভিযোগ ওঠে, ডিবি আন্তরিকভাবে মামলার তদন্ত না করে মামলার চূড়ান্ত প্রতিবেদন আদালতে দাখিল করেছে।

ডিবি এর এক মাস পর ২০১৬ সালের ২৭ জানুয়ারি পুরান ঢাকার খাঁজে দেওয়ান লেনের নিজ বাসার সামনে থেকে সন্দেহভাজন হিসেবে মো. কামালকে গ্রেপ্তার করে। কামালকে গ্রেপ্তার করার পর মামলাটি পুনরুজ্জীবিত হয়। পরে সে বছর ২৩ ফেব্রুয়ারি পিবিআইকে অধিকতর তদন্তের জন্য নির্দেশ দেন আদালত।

Check Also

স্কুল পরীক্ষার প্রশ্নপত্রে পর্নো তারকার বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, ঢাকার রামকৃষ্ণ মিশন উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির প্রশ্নপত্রে পর্নো তারকার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Website Design, Developed & Hosted by