Home / জাতীয় / তদন্তের কিনারা হচ্ছে না

তদন্তের কিনারা হচ্ছে না

সাংবাদিক দম্পতিসহ বহুল আলোচিত তিন হত্যাকান্ডের সাথে জড়িতদের শনাক্ত কিংবা মামলার তদন্তে কুলকিনারা করতে পারছে না তদন্ত সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা। এসব মামলার রহস্য উদ্ঘাটন না হওয়ায় ভুক্তভোগী পরিবারগুলো যেমন ক্ষুব্ধ, তেমনি তদন্ত নিয়ে সামাজিক মাধ্যমে হাজারো মানুষের নানা প্রশ্ন। বছরের পর বছর তদন্ত গড়ালেও হত্যাকান্ডে সরাসরি জড়িত, পরিকল্পনাকারী ও মদদদাতাদের সম্পর্কে অন্ধকারে র‌্যাব-পুলিশের তদন্তকারী কর্মকর্তারা।

চাঞ্চল্যকর তিন হত্যা মামলা হচ্ছে সাংবাদিক দম্পতি সাগর সরওয়ার ও মেহেরুন রুনি, কুমিল্লার সোহাগী জাহান তনু এবং চট্টগ্রামের সাবেক পুলিশ সুপার বাবুল আক্তারের স্ত্রী মাহমুদা আক্তার মিতু। তদন্ত সূত্রে জানা গেছে, এই তিন মামলায় প্রকৃত খুনী, মদদদাতা ও নেপেথ্যে জড়িতরা ধরা ছোয়ার বাইরে। অদৃশ্য কারণে মামলার তদন্তে নেই কোন অগ্রগতি

সাবেক আইজিপি মো. আব্দুল কাইয়ুম বলেন, বর্তমান সময়ে পুলিশের কর্মকর্তাদের দক্ষতা ও অত্যাধুনিক প্রযুক্তি রয়েছে। কিন্তু দীর্ঘ দিনেও সমাজকে নাড়া দেয়া এসব চাঞ্চল্যকর হত্যাকান্ডের সাথে জড়িতরা গ্রেফতার না হওয়ায় নানা প্রশ্নের সৃষ্টি হয়েছে। রহস্য উদঘাটন ও জড়িতদের গ্রেফতারে বিলম্বিত হলে ভুক্তভোগি পরিবারগুলোর মধ্যে হতাশার সৃষ্টি হয়। সে সাথে আইন-শৃংখলা বাহিনীর ভূমিকাও প্রশ্নবিদ্ধ হয়।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, কোনো কোনো মামলার তদন্তে দেরি হতে পারে। তবে এ ক্ষেত্রে তদন্ত কর্মকর্তাকে আদালতে ব্যাখ্যা দিতে হয়। তবে কেউ যেন বিচার পাওয়া থেকে বঞ্চিত না হয় সে বিষয়ে আইন-শৃংখলা বাহিনীর শীর্ষ কর্মকর্তাদের আরো আন্তরিক হওয়া প্রয়োজন।

এ তিনটি চাঞ্চল্যকর হত্যা মামলার তদন্তের সাথে জড়িত কর্মকর্তারা বলছেন, মামলা অধিক গুরুত্বের সঙ্গেই তদন্ত করা হচ্ছে। এখানে কোনো গাফিলতি নেই। জড়িতদের শনাক্ত ও গ্রেফতারে আরো সময়ের প্রয়োজন।

Check Also

আখাউড়া সীমান্তে হোলি উৎসবে মাতল বিজিবি-বিএসএফ

সনাতন ধর্মাবলম্বীদের দোলযাত্রা (হোলি) উপলক্ষে বডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) জওয়ানদের আবির (রং) মাখিয়ে আনন্দ ভাগাভাগি …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Website Design, Developed & Hosted by