Home / জাতীয় / পাসপোর্ট অফিসে টাকা দিলে হাঁটে ফাইল!

পাসপোর্ট অফিসে টাকা দিলে হাঁটে ফাইল!

ঘুষ ছাড়া এক ঘর থেকে অন্য ঘরে যায় না খাগড়াছড়ি পাসপোর্ট অফিসের কোনো ফাইল। ফরম সংগ্রহ থেকে শুরু করে পাওয়া পর্যন্ত, অফিসের পিয়ন থেকে শুরু করে প্রধান কর্তা পর্যন্ত সবাইকে নানা অজুহাতে দিতে হয় ‘অফিস খরচ’!

খরচের পরিমাণটাও রীতিমতো অবাক করার মতো। আর না দিলে মিলবে অন্তহীন ভোগান্তি। শুধু তাই নয়, পুলিশের নাম করেও নেওয়া হচ্ছে মোটা অংকের টাকা।

খাগড়াছড়ির জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সে পাসপোর্ট অফিস চালু হওয়ার বছর পূর্ণ হওয়ার আগে থেকে স্থানীয়দের পাহাড়সম অভিযোগ জমে যায়। পাসপোর্ট করতে গিয়ে রীতিমতো ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে সবাইকে। সব ঠিক থাকার পরও নানা ছুঁতো দিয়ে টাকা চেয়ে বসেন অফিসের কর্মকর্তারা। আবার পুলিশি যাচাই-বাছাইয়ের জন্য নেওয়া হয় আলাদা টাকা। এতে অতিষ্ট স্থানীয়রা।

এদিকে পাসপোর্ট অফিসে সবচেয়ে বেশি অভিযোগ অফিস সহকারী শিপন হোসেনের বিরুদ্ধে। তিনি প্রত্যেকটা ফাইল থেকে এক থেকে দেড় হাজার টাকা করে নেন বলে জানান ভুক্তভোগীরা। এ নিয়ে কর্মকর্তার কাছে অভিযোগ করতে গেলে উল্টো হুমকি ধমকি দেওয়া হয়।

আবার পাসপোর্ট অফিসের অনিয়মের খবর সংগ্রহ করতে যাওয়ার পর থেকে প্রধানমন্ত্রীর দফতরসহ বিভিন্ন মন্ত্রী ও লোকের প্রভাব দেখিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে মিটমাট করার চেষ্টা করেন অভিযুক্ত কর্মকর্তারা। পুলিশের নাম ভাঙিয়ে টাকা নেওয়ায় ক্ষুদ্ধ পুলিশ প্রশাসন।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, পাসপোর্ট ফরমে সবকিছু ঠিক থাকার পরও কর্মকর্তারা বিভিন্ন অজুহাত দেখিয়ে পুনরায় ফরম পূর্ণ করে জমা দেওয়ার কথা বলেন। তবে অতিরিক্ত অর্থ দিলে নিজেরা ফরমটি ঠিক করে দেবেন বলে জানান। তার জন্য ১৫শ টাকা থেকে থেকে ২ হাজার টাকা দাবি করা হয়। পাশাপাশি পুলিশি যাচাই-বাছাইয়ের জন্য চাওয়া হয় আরো ২ থেকে ৩ হাজার টাকা। আর টাকা দিতে না চাইলে স্বাক্ষর দিতে অনীহা প্রকাশ করেন।

Check Also

মসজিদে হামলাকারী জঙ্গির সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করুন

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে জঙ্গি হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে ইসলামী ছাত্র খেলাফত বাংলাদেশ। রবিবার সকালে জাতীয় …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Website Design, Developed & Hosted by