Home / জাতীয় / কাঁচপুর দ্বিতীয় সেতু উদ্বোধনের অপেক্ষায়

কাঁচপুর দ্বিতীয় সেতু উদ্বোধনের অপেক্ষায়

কাঁচপুরে চার লেন বিশিষ্ট দ্বিতীয় সেতুর নির্মাণ কাজ শেষ। এখন শুধু উদ্বোধনের অপেক্ষা। সরকারের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের অনুমতি সাপেক্ষে খুলে দেওয়া হবে সেতুটি। এতে করে কাচঁপুরে র্দীঘদিনের যানজটের ভোগান্তি থেকে মুক্তি মিলবে চালক ও যাত্রীদের।

সেতু বিভাগ সূত্রে জানা যায়, দেশের অর্থনীতির লাইফলাইন ঢাকা চট্টগ্রাম মহাসড়ক। ঢাকা-সিলেট ও ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের প্রবেশ পথের ট্রানজিট রুট শীতলক্ষ্যা নদীর ওপর কাচঁপুর সেতু। সেতুটি ১৯৭৭ সালে নির্মাণ করা হয়েছিল। দু’লেন দু’লেন চার লেন বিশিষ্ট এই সেতুটি দিয়ে গড়ে প্রতিদিন ৩০ হাজারের বেশি যানবাহন চলাচল করে। ঢাকার যাত্রাবাড়ী থেকে কাচঁপুর সেতু পর্যন্ত আট লেন বিশিষ্ট সড়ক। চার লেনে গাড়ি এসে কাচঁপুর সেতুতে যানবাহন উঠতে হতো দু’লেনে। এতে প্রায় প্রতিদিনই দুঃসহ যানজটের ভোগান্তি পোহাতে হতো যাত্রী ও চালকদের। পাঁচ মিনিটের পথ পাড়ি দিতে সময় লাগত দেড় থেকে দুই ঘণ্টা। এই ভোগান্তি থেকে মুক্তির জন্য বাংলাদেশ সরকারের সেতু বিভাগ ও জাপানের (জাইকার) যৌথ অর্থায়নে দ্বিতীয় কাঁচপুর, দ্বিতীয় মেঘনা ও দ্বিতীয় মেঘনা গোমতি নদীর ওপর এ তিনটি সেতুর কাজ শুরু হয় ২০১৬ সালে। এরই মধ্যে নির্ধারিত সময়ের প্রায় ৬ মাস আগেই শেষ হয়েছে কাচঁপুর সেতুর কাজ নির্মাণ কাজ। এখন শুধু উদ্বোধনের অপেক্ষা।

নারায়ণগঞ্জের কাচঁপুরের বাসিন্দা আরাফাত রহমান বলেন, ‘দ্বিতীয় কাঁচপুর সেতুর নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে। যত দ্রুত সেতুটি উদ্বোধন করে যানবাহন চলাচল কারার জন্য খুলে দেওয়া হবে, তত দ্রুত মানুষ ভোগান্তির হাত থেকে রক্ষা পাবে।’

স্টার লাইন বাসের চালক সাহাবুদ্দিন মিয়া বলেন, ‘এই সড়কটি খুলে দেওয়া হলে দীর্ঘ দিনের ভোগান্তির হাত থেকে রক্ষা পাব। এজন্য সরকারকে দ্রুত সেতুটি উদ্বোধন করার জন্য অনুরোধ করা হচ্ছে।’

Check Also

মসজিদে হামলাকারী জঙ্গির সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করুন

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে জঙ্গি হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে ইসলামী ছাত্র খেলাফত বাংলাদেশ। রবিবার সকালে জাতীয় …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Website Design, Developed & Hosted by