Home / রাজনীতি / ছাত্রদল নেতাদের সিম ছেড়ে আইপিতে ভরসা

ছাত্রদল নেতাদের সিম ছেড়ে আইপিতে ভরসা

কথোপকথন রেকর্ড হতে পারে, এই আশঙ্কায় নিজেদের মধ্যে যোগাযোগে মোবাইল ফোনের ব্যবহার সীমিত করছে বিএনপির ছাত্রবিষয়ক সংগঠন ছাত্রদল। এর বদলে মেসেজিং অ্যাপ ‘হোয়াটসঅ্যাপ’ ব্যবহার করছেন। পাশাপাশি আইপি (ইন্টারনেট প্রটোকল) ফোনে কথা বলছেন সংগঠনটির শীর্ষ নেতারা।

রাজনীতিতে চাপে থাকা বিএনপি একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে ঘিরে সদর্পে ফিরে আসার স্বপ্নে ছিল। কিন্তু ভোটে ভরাডুবির পর ভেঙে গেছে তা। বিএনপি এখন অনেকটাই নিষ্ক্রিয়, কর্মসূচিও নেই বললেই চলে। একই দশা রাজনীতির মাঠে ৯০ দশকের দাপুটে সংগঠন ছাত্রদলেরও। হাজার হাজার নেতাকর্মী মামলা ও গ্রেপ্তার আতঙ্ক নিয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে।

ছাত্রদলের একাধিক নেতা বলেন, দলের কার্যক্রম ঠিক রাখতে নেতাকর্মীদের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করাটা জরুরি হলেও বর্তমান প্রেক্ষাপটে তা কঠিন হয়ে পড়েছে। দেশীয় অপারেটরের সিম ব্যবহার করে ফোন ব্যবহার করলেই ধরা পড়ার আশঙ্কা। যে কারণে নিজেদের আড়াল করতে আইপি ফোন কিংবা অ্যাপভিত্তিক কলিং সেবার দ্বারস্থ হচ্ছেন।

ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সভাপতি রাজীব আহসান আর দেশীয় অপারেটরের ফোন নম্বর ব্যবহার করছেন না। তার আগের নম্বর বন্ধ পাওয়া গেছে। তার বিরুদ্ধে নাশকতার অন্তত ৬০টি মামলা রয়েছে।

পুলিশের কাজে বাধা দেওয়া থেকে শুরু করে নাশকতার অন্তত ৫৫টি মামলা নিয়ে অনেকটাই পর্দার আড়ালে ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক আকরাম হোসেন। তিনিও যোগাযোগের জন্য আইপি ফোনের আশ্রয় নিয়েছেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদল শাখার সভাপতি মেহেদী হাসানও আর দেশীয় অপারেটরের ফোন নম্বর ব্যবহার করছেন না বলে জানিয়েছেন অন্য নেতারা। তার আইপি নম্বরটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মিনেসোটা অঙ্গরাজ্যের একটি আইএসপি কোম্পানির কাছ থেকে নেওয়া।

জানতে চাইলে ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কমিটির সহসভাপতি নাজমুল ইসলাম বলেন, ‘ছাত্রদলকে কোণঠাসা করার জন্য দমন পীড়নের পাশাপাশি গ্রেপ্তার ও হয়রানি চলছে। মূলত এ থেকে পরিত্রাণ পেতেই বিকল্প ফোন নম্বর ব্যবহার করছেন নেতারা।’

‘এসব নম্বর ব্যবহারের সুবিধা হলো আড়ি পাতা থেকে শুরু করে ফোন ও ফোন ব্যবহারকারীর অবস্থান শনাক্ত করা সম্ভব হয় না। এ জন্যই তারা এসব ব্যবহার করছেন।’

কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক মিনহাজ ভুইয়া বলেন, ‘দেশীয় মোবাইল অপারেটরদের নম্বর ব্যবহার করলে বিভিন্ন প্রকার হয়রানি ও ঝামেলার মুখোমুখি হতে হয়। হয়রানি থেকে বাঁচতেই এ পন্থা অবলম্বন করা হয়েছে।’

ছাত্রদলের নেতাদের আইপি ব্যবহারের বিষয়টি পুলিশের জানা এবং এ বিষয়ে তাদের নজরদারিও রয়েছে বলে জানান ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের উত্তর বিভাগের উপকমিশনার মশিউর রহমান।

তিনি বলেন, ‘আমরা এটা আগে থেকেই জানি। শুধু ছাত্রদল নয়, বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতারা হোয়াটসঅ্যাপ এবং আইপি নম্বর ব্যবহার করে সহিংসতা এবং নাশকতামূলক কর্মকা- পরিচালনা করে। মাঝেমধ্যে আমরা অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তারও করি। আসলে দেশীয় নম্বর থাকতে যারা এসব বিদেশি বিকল্প নম্বর ব্যবহার করে, তাদের উদ্দেশ্য খারাপ বলেই তারা এটা করে। আমরা আগেই অভিযোগ পেয়েছি ছাত্রদলের শীর্ষ নেতারা আইপি ব্যবহার করে। যে কারণে বিষয়টি আমাদের নজরদারিতে রয়েছে।’

Check Also

মারা যাওয়ার পর মানুষ যাতে আমার জন্য আফসোস করে

নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ শামীম ওসমান করজোড়ে মিনতি করে বলেছেন, আমার মা-ও নাই বাবাও নাই।আপনারা আমার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Website Design, Developed & Hosted by